৪০ তম বিসিএস প্রস্তুতি- সার্কুলার হয়ে গেছে সময় কম


৪০ তম বিসিএস প্রস্তুতি- সব বিষয়ের টিউটোরিয়াল 

৪০ তম বিসিএস প্রস্তুতি সিলেবাস অনুযায়ী নেয়া উচিত। বিভিন্ন প্রকাশনীর বইতে যেমনঃ ওরাকল, এম পি থ্রী, প্রফেসরস ইত্যাদি প্রকাশনীর প্রকাশ করা বইগুলোতেও সিলেবাসভিত্তিক আলোচনা এবং অধ্যায়ভিত্তিক বিভিন্ন সালের প্রশ্ন দেয়া আছে। আমরা চেষ্টা করব- সিলেবাসভিত্তিক বিভিন্ন বিষয়ের ভিডিও টিউটোরিয়াল আপনাদের সামনে তুলে ধরতে। যারা পড়তে পছন্দ করেন, তারা পড়তে পারবেন, যারা ভিডিওতে দেখে পড়তে পছন্দ করেন তারা ভিডিওতে দেখে পড়বেন। 

চাকরির খবর- Jobsbd.club থেকে

প্রিলিমিনারী সিলেবাস- ৪০ তম বিসিএস প্রস্তুতি

বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষার সিলেবাসে কিছু বিষয় অন্তর্ভূক্ত আছে। এগুলোর  বিস্তারিত সিলেবাসও আপনারা আলোচনার সাথে সাথে দেখতে পাবেন। প্রথমে যে বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত আছে সেগুলো দেখে নেয়া যাক-
  1. বাংলাদেশ বিষয়াবলী
  2. আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী
  3. বাংলা ভাষা ও সাহিত্য
  4. English Language And Literature
  5. গাণিতিক যুক্তি
  6. মানসিক দক্ষতা
  7. দৈনন্দিন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  8. ভূগোল, পরিবেশ ও দুর্যোগ ব্যাবস্থাপনা
  9. কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি
  10. নৈতিকতা, মূল্যবোধ ও সুশাসন
এই দশটি বিষয়ের উপর প্রিলিমিনারী পরীক্ষা হবে। সুতরাং আমাদের আলোচনাও এই দশটি বিষয়ের মাঝে সীমাবদ্ধ থাকবে। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে লিখিত পরীক্ষায় অতিরিক্ত ৫০ মার্কসের পরীক্ষা দিতে হবে সেটা ইতিমধ্যেই আপনারা জেনে গেছেন। এজন্য প্রিলিমিনারীতেও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে ভালো করে প্রস্তুতি নেবেন, এখান থেকে প্রিলিমিনারীতেও অনেকগুলো প্রশ্ন হতে পারে। 

৪০ তম বিসিএস প্রস্তুতি কিভাবে নেবো

সম্ভবত জানুয়ারি বা, ফেব্রুয়ারি মাসে ৪০ তম বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষা হতে পারে। জাতীয় নির্বাচনের কারণে নিশ্চিত কিছুই বলা যায় না, কবে পরীক্ষা হবে সেটা আপনি, আমি, সুশান্ত পাল, Zakir's BCS SPecials সবার চেয়ে পিএসসি ই ভালো জানে। বিভিন্ন গুণীজন প্রস্তুতি নেয়ার জন্য বিভিন্ন রকম পরামর্শ দেন, আমিও আপনাদের একটা সহজ পরামর্শ দেবো- সেটা হচ্ছে সবার পরামর্শে যেটা কমন সেটা ফলো করুন। সেটা হচ্ছে- সবাই একবাক্যে স্বীকার করে যে নিয়মিত পড়তে হবে(যারা দিনরাত পড়তে বলে আর যারা,  অলসদের নিয়মে পড়তে বলে সবার এক কথা পড়াটা নিয়মিত হতে হবে। এক দিন পড়বেন, ৫ দিন ঘুরে বেড়াবেন সেটা হবে না)। নিজে টার্গেট ঠিক করে পড়ুন- প্রতিদিন আপনি যতটুকু পড়তে পারেন, সেভাবে পড়লে জানুয়ারি মাস পর্যন্ত পুরো সিলেবাস সংক্ষেপে শেষ করা সম্ভব হয় এরকম পরিকল্পনা খাতায় লিখে ফেলুন। তার আগে বিগত সব বিসিএস এর প্রশ্ন শেষ করে ফেলুন। প্রতিদিনের টার্গেট পূরণের পর সিনেমা দেখা বা, প্রেম যা খুশী করতে পারেন। 

আপনার গার্লফ্রেন্ড হতে পারে অন্যের বউ

এই কথাটা অনেকের জন্যই সত্যি। ছেলেদের জন্য বলছি, সাধারণত সমবয়সী মেয়েদের সাথে যাদের প্রেমের সম্পর্ক আছে, তাদের চাকরি না হলে বিপদ আছে। মেয়ের বাবা দেরী করবে না, অন্য আরেকজন ক্যাডারের সাথে তার মেয়ের বিয়ে দিতে চাইবে। আপনি যদি বিসিএস এ ক্যাডার না হতে পারেন, আপনার গার্লফ্রেন্ড ক্যাডার হোক বা, না হোক তার বিকল্প অপশন আছে। এখন আপনাকে যাই বলুক সময়মত কয়টা মেয়েকেই বা তাদের প্রেমিকেরা পাশে পায়?
আর, মেয়েদের জন্য এই ভয় কম। তবে, বিসিএস ক্যাডার হতে পারলে অনেক সুবিধা আছে। বয়ফ্রেন্ড চেঞ্জ করার সুবিধা তো আছেই, বিবাহিত হলে শশুর বাড়ীতে বউয়ের মূল্য বেড়ে যাবে। সামাজিক, পারিবারিক সব ধরণের সম্মান পাবেন যেটা এমনিতে নাও পেতে পারতেন। আমরা যাই বলি না কেন- এখনো একটা ছেলে আর একটা মেয়েকে সমান চোখে আমাদের সমাজে দেখা হয় না। বেকার ছেলের ব্যক্তি হিসেবে মূল্যায়ন সমাজে আছে, বেকার মেয়ে বা, Housewife মেয়েদের নিজস্ব সত্বা অনেক সময় হারিয়ে যায়। 

পুনশ্চঃ এই পেজটি চাইলে আপনি Bookmark করে রেখে দিতে পারেন। কারণ এখান থেকে বিষয় সিলেক্ট করলেই ঐ বিষয়ে আমাদের প্রকাশিত যত লেখা বা, টিউটোরিয়াল আছে সব খুজে পাবেন। এতে আপনার ৪০ তম বিসিএস প্রস্তুতি নিতে সুবিধা হবে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন