ফাগুন হাওয়ায় চলচ্চিত্র- তৌকির আহমেদের নতুন সিনেমা

Share:

ফাগুন হাওয়ায় চলচ্চিত্র- তিশা এবং সিয়াম অভিনীত

পুরোপুরি ভাষা আন্দোলন নির্ভর প্রথম বাংলা চলচ্চিত্র হতে যাচ্ছে ফাগুন হাওয়ায়।  সিনেমাটি মুক্তি পাবে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি। এটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ৮ ফেব্রুয়ারি, আমি জানি না কেন এটি ১৫ ফেব্রুয়ারি মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। তৌকির আহমেদের অজ্ঞাতনামা সিনেমাটি আমি ইউটিউবে বিভিন্ন চ্যনেলে আপলোড হতে দেখেছি। 
অজ্ঞাতনামার কারণে ফেসবুকে হালদার অনেক প্রচার হতে দেখেছি। আমি বৈধ উপায়ে ইউটিউবে অজ্ঞাতনামা সিনেমাটি দেখেছিলাম। কিন্তু যারা এটি আপলোড করেছিলেন তারা অবৈধ একটি কাজ করেছিলেন। আমি ফাগুন হাওয়ায় সিনেমাটি দেখতে হলে যাব। (তৌকির আহমেদ একটি টেলিভিশন শো তে তার শুভাকাংখীদের বলেছেন, সিনেমাটি প্রচার করতে- তাই এখানে প্রচার করতে উদ্বুদ্ধ হয়েছি।)

কোন কোন সিনেমা হলে ফাগুন হাওয়ায় সিনেমাটি দেখা যাবে

এই খবর এখনও আমি খুজে পাইনি, পেলেই এই পেজের মাধ্যমে আপনাদের জানানো হবে। আপাতত চলুন সিনেমার অফিসিয়াল Trailor দেখে আসি-
সিনেমার টিজারগুলো আমার ভালো লেগেছে। আমি হলে যাবো দেখতে। আরো কিছু কথা বলার ছিলো এরপর আরেকটি Teaser দেখাচ্ছি।

যারা বলেন- এটা সিনেমা না টেলিফিল্ম
অফট্র্যকের সবগুলো সিনেমার ক্ষেত্রে আপনারা এই কথা বলেন। জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সোহেল রানা বলেছিলেন - হুমায়ুন আহমেদ সিনেমার নামে রসগোল্লা বানান। আপনারা অন্যান্য দেশের সিনেমা এবং টেলিফিল্ম নিয়ে একটু খোঁজ নিয়ে দেখবেন। পৃথিবীর বিখ্যাত সিনেমা কোনগুলোকে বলা হয় সেটা একটু দেখে নেবেন। এযাবতকালের সেরা বাঙালী চলচ্চিত্রকার "সত্যজিৎ রায়" এর দু একটা সিনেমা দেখবেন। ১৯৬৫-১৯৭০ এর মধ্যে তিনি রঙ্গীন বাংলা সিনেমাও বানিয়েছেন। সেরা বাংলাদেশী চলচ্চিত্রকারের তকমা পাওয়া জহির রায়হানের সিনেমাগুলো একটু দেইখেন। 
এবার আরেকটা Teaser দেখেন-

ফাউ প্যাঁচাল বাদ দিয়ে "ফাগুন হাওয়ায়" কোন হলে মুক্তি পাবে বলেন

হ্যাঁ সেটাই বলতে চেয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি- আমি Facebook, Google এইসব খুজেও কোন হদিস পেলাম না। আবারো আশ্বাস দিচ্ছি। এই পেজেই সিনেমা মুক্তি পাওয়ার আগেই আপনাদের দেখিয়ে দেবো কোন কোন হলে মুক্তি পাচ্ছে। আগে আশ্বাস দিয়েছিলাম এবার নিচের ছবিতে দেখে নিন কোন কোন হলে সিনেমাটি চলছে-

মুম্বাই বা, বোম্বের ৯০ দশকের সিনেমার ভাবধারাপুষ্ট নকল সিনেমাগুলো আসলে সিনেমা না, নকল- দুই নম্বর জিনিস। একজন হিরো(জীবনে কোন খারাপ কাজ করবে না), একজন ভিলেন(ভালো কাজ করা তার কাজ না), হিরোর বন্ধু বলদ কমেডিয়ান(চার্লি চ্যাপলিনের মত না), এক দুইজন নায়িকা যাদের জন্য সারাবছর আল্লা বৈশাখ মাসের গরম দিয়ে রাখে। Come on- ২০১৯ সালে বসে নব্বই সালের বলিউডি সিনেমা যেটা থেকে ওরাও অনেকটা বেরিয়ে এসেছে, সেটাতে ফিরে যেতে চাওয়ার কোন যুক্তি নাই। আমরা দর্শকেরা সিনেমা দেখতে চাই, সোহেল রানার চটপটি খেতে সিনেমা হলে যাই না- ওটা রাস্তার পাশেই পাওয়া যায়(সেখানে আরাম করে খাই)। 

No comments