মঙ্গলবার, ৩০ অক্টোবর, ২০১৮

ব্লগ এবং ওয়েবসাইটের মধ্যে পার্থক্য কি ? নাকি দুটিই আসলে এক

ব্লগ এবং ওয়েবসাইটের মধ্যে পার্থক্য

নতুন যারা অনলাইনে লেখালেখি শুরু করতে যান তাদের মনের মধ্যে এই প্রশ্ন উকি দেয়- ব্লগ এবং ওয়েবসাইটের মধ্যে পার্থক্য আসলে কি? দুটোতেই তো বিভিন্ন পোস্ট দেখি। আপনিও যদি তাদের কেউ হোন তাহলে, আপনার লক্ষ্যে পৌছানোর জন্য এই লেখাটা কাজে লাগতে পারে। আমরা ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করবো একটি ব্লগ কিভাবে একটি প্রথাগত ওয়েবসাইট থেকে আলাদা। 

ব্লগ কি?

ব্লগ হচ্ছে এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে কনটেন্টগুলো ধারাবাহিকভাবে সাজানো থাকে- যেগুলোকে ব্লগ পোস্ট বলা হয়। এখানে নতুন পোস্টগুলো প্রথমে দেখা যায় আর, পুরাতনগুলো পরে। ব্লগ পোস্টগুলো হয় আলোচনার ধাচে, যেন কেউ সবার সাথে কথা বলছে। একটি কমেন্ট সেকশন থাকে যেখানে অন্যতা কমেন্ট করে তাদের মতামত জানাতে পারে।গুগোলের  ব্লগার বা, ওয়ার্ডপ্রেস এ ফ্রী ব্লগ তৈরি করা যায়। 

ব্লগের ইতিহাস 

ব্লগ এসেছে ৯০ এর দশকের দিকে। তখন কিছু লোক তাদের নিজস্ব ওয়েবপেজ থেকে ব্যক্তিগত ডায়েরির মত করে নিজেদের চিন্তাভাবনা এবং জীবনযাপনের কথা লিখতো। অনলাইনের এই ডায়েরিকে বলা হতো Weblog, সেটা সংক্ষিপ্ত হয়ে পরে ব্লগে রূপান্তরিত হয়েছে। পরে বিভিন্ন ধরণের ওয়েবটুল ব্যবহার হতে দেখা যায়।  ১৯৯৯ সালে blogger.com যাত্রা শুরু করে এবং ২০০৩ সালে এটা গুগোল কিনে নেয়, একই বছর ওয়ার্ডপ্রেসও যাত্রা শুরু করে। এখন পর্যন্ত Wordpress ই সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্লগ। 

ব্লগ এবং ওয়েবসাইটের মধ্যে পার্থক্য আসলে কি?

ওয়েবসাইটে বিভিন্ন পেজে কনটেন্ট সাজানো থাকে- প্রতিদিনই আপডেট নাও আসতে পারে। কিন্তু ব্লগ সাধারণত নিয়মিত আপডেট হয় এবং একটি পেজে নতুন লেখাগুলো শুরুতে দেখা যায়। অনেকটা অনলাইন ডায়েরির মত করে যেটা লেখা হয় সেটা হচ্ছে ব্লগ। অনেক ওয়েবসাইটের ব্লগ নামে একটা পেজ থাকে যেখানে ব্লগাররা বিভিন্ন লেখা লিখে থাকেন। এককথায়, সব ব্লগকেই একটা ওয়েবসাইট বা, ওয়েবসাইটের অংশ বলা যায় কিন্তু সব ওয়েবসাইটকে ব্লগ বলা যায় না। ওয়েবসাইটগুলোতে পেজ ব্যবহার করা হয়, কিন্তু ব্লগে ক্যাটাগরি এবং ট্যাগের মাধ্যমে লেখাগুলোকে আলাদা করা হয়। 

মানুষ ব্লগিং কেন করে এবং এটা করে আয় করে কিভাবে

নিজের চিন্তাভাবনা, জ্ঞান ইত্যাদি অন্যদের সাথে শেয়ার করার জন্য মূলত ব্লগিং করে, টাকা আয়ের জন্যও করে। যেসব ব্লগারদের প্রচুর জনপ্রিয়তা রয়েছে তারা এই জনপ্রিয়তা কাজে লাগিয়ে টাকা আয় করতে পারে। গুগোল এডসেন্স এবং আরো অনেক বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠান আছে যেগুলোর মাধ্যমে এড দেখিয়ে মানুষ আয় করে। এডসেন্স টিউটোরিয়াল সিরিজ পড়ে দেখতে পারেন। এছাড়া এফিলিয়েট মার্কেটিং বা, অন্যদের জিনিস বিক্রি করতে সাহায্য করে, নিজের পণ্য/সৃজনশীলতা বিক্রি করে টাকা আয় করে। 

যে কেউ কি ব্লগিং শুরু করতে পারে

ব্লগ এবং ওয়েবসাইটের মধ্যে পার্থক্য তো জানলাম। এখন আমি কি চাইলেই একটি ব্লগ বা, ওয়েবসাইট শুরু করতে পারবো। উত্তরটা হচ্ছে হ্যা পারবেন। এজন্য আমাদের ব্লগস্পট টিউটোরিয়াল সিরিজের লেখাগুলো পড়লে ব্লগস্পটে একটি ব্লগ তৈরি করতে আপনার সুবিধা হবে, এজন্য কোন টাকা পয়সা খরচ করতে হবে না। 

এরপর আমরা শুধুমাত্র ব্লগিং নিয়ে আমরা একটা টিউটোরিয়ালের সিরিজ শুরু করতে যাচ্ছি যেখানে লেখালেখি এবং ব্লগ নিয়ে আলোচনা হবে। আচ্ছা বলুনতো tutorialsbangla.com ব্লগ নাকি ওয়েবসাইট??? উত্তরের অপেক্ষায় থাকলাম। 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন