গুগোল প্লাস বন্ধ হয়ে যাবে ২ এপ্রিল ২০১৯ এর পর থেকে- ইউটিউবের কি হবে

আমরা অনেকেই জানি যে গুগোল প্লাস ২০১৯ সালের ২ এপ্রিল বন্ধ হয়ে যাবে। কাস্টমারদের প্রত্যাশা মেটাতে পারছে না বলে গুগোলের এই সেবাটি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। মোটা দাগে- অন্য সামাজিক যোগাযোগের সাথে পাল্লা দিয়ে গুগোল প্লাস ঠিক পেরে উঠছে না। ব্লগার, ইউটিউবাররা অনেকে গুগোল প্লাসের উপর নির্ভরশীল। যেমন- ব্লগস্পটে কমেন্টিং এর জন্য Google Plus বা, ইউটিউবে ব্র্যান্ড একাউন্টের ইমেজ, ইউআরএল এগুলো কাজ করে। 
আরো কিছু বিষয় আছে যেমনঃ Gsuite, API ইউজার এদের ক্ষেত্রে খুব একটা পরিবর্তন আসবে না। একবাক্যে গুগোল প্লাস এবং সংশ্লিষ্ট আর কোন সেবা থাকছে না, তবে অন্য সেবার সাথে সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো খুব একটা ক্ষতিগ্রস্থ হবে না। এই লেখাটির উদ্দেশ্য ইউটিউবার এবং ব্লগারদের জন্য।
 

ইউটিউবে কি পরিবর্তন আসছে

একটা কথা জেনে রাখুন। ফেব্রুয়ারি থেকেই ইউটিউবে গুগোল প্লাসের প্রভাব পড়তে যাচ্ছে। গুগোল প্লাসের সাথে সংশ্লিষ্ট কিছু সেবা আর থাকছে না। গুগোল প্লাসের ব্র্যান্ড একাউন্ট এর সাথে যারা গুগোল প্লাস যারা চালান তারা নিচের লেখা সুবিধাগুলো হারাতে যাচ্ছেন(এই বিষয়ে গুগোলের লেখা)-
  • চ্যানেল আর্ট এবং চ্যানেল আইকন মোবাইলে গুগোল প্লাসের মাধ্যমে পরিবর্তন
  • গুগোল প্লাস সার্কেলে নিজের প্রাইভেট ভিডিও শেয়ার
  • ইউটিউব চ্যানেলে গুগোল প্লাস লিংক এবং কাস্টম URL
  • পুরনো ইউটিউব এপে কমেন্ট করা
ভয় পাওয়ার কিছু নাই, চ্যানেল হারাবে না। আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটিও গুগোল প্লাসের ব্র্যান্ড একাউন্ট। তাই, আমাদের ইউটিউব চ্যানেলের youtube.com/+tutorialsbangla আর কাজ করবে না।তবে কাস্টম URL কাজ করবে। যেমন- youtube.com/tutorialsbangla খুব ভালোভাবে কাজ করবে। 


ব্লগস্পট সাইটগুলোতে কি পরিবর্তন আসছে

হ্যাঁ, এখানেও আপনারা অনেক কিছু হারাতে যাচ্ছেন যারা কমেন্ট অপশন হিসেবে Google Plus কে ব্যবহার করেছেন বিশেষ করে তারা। গুগোল প্লাসের সব কমেন্ট ডিলিট হয়ে যাবে। যারা Community এর মাধ্যমে ব্লগস্পটে ফোরাম তৈরি করেছিলেন তারাও সেটা হারাতে যাচ্ছেন। অনেক বড় কোন প্রভাব ব্লগে পড়বে না, তাই খুব একটা চিন্তার কিছু নেই।(গুগোলের কাছ থেকে চাইলে জেনে নিতে পারেন)
তবে, গুগোল প্লাসে আর্টিকেলের লিংক শেয়ার করে যারা সার্চ ইঞ্জিনে একটা ইমপ্যাক্ট ফেলার চেষ্টা করেছিলেন তারা ঐ সুযোগটা হারাবেন। অন্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে যে শেয়ারগুলো ছিলো সেগুলোর প্রভাব তো থাকবেই, তাই এটাও খুব বড় কোন ব্যাপার না। 
সবাইকে গুগোল শান্তনামূলক কিছু বার্তা দিয়েছে- যেমনঃ এটাকে একটা Special place বানানোর জন্য আপনাদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ ইত্যাদি ইত্যাদি। সব শেষে কথা হচ্ছে- অন্যন্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম আছে, আমাদের কান্নাকাটি করার মত কিছু ঘটেনি। ফেসবুক বন্ধ হলে অনেকেই কান্নাকাটি করতো আমি নিশ্চিত। 
 

Leave a Reply