পেঁচার নিষ্পাপ ছবি ও প্রচলিত গুজব

ভয় কি লাগছে না?
ফটোগ্রাফারঃ Brigitte Werner

পেঁচা নিশাচর, শিকারী পাখি

আমার মনে হয় না কেউ আমার সাথে দ্বিমত পোষণ করবে, যে পাখিটি দেখলেই ভয় লাগে সেটা প্যাঁচা। শিরোনাম আর বর্ণনা এই দুটি অংশের পেঁচকের দুইটি নাম লক্ষ্য করুন। আসলে তিনটি নামই প্যাঁচার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়। এদের প্রায় দুইশ প্রজাতি এখনো টিকে আছে বলে মনে করা হয়।

বাজপাখি বা, চিলের মত না হলেও এরা উপর থেকে ঠোকর মেরে ধারালো ঠোট এবং নখের সাহায্যে খাবার সংগ্রহ করতে পছন্দ করে। কোথায় কোথায় পেঁচা পাওয়া যায় সেটা না বলে কোথায় পাওয়া যায় না সেটা বলাই যৌক্তিক। গ্রীনল্যান্ড এবং কুমেরু এবং আরো গুটিকতক অঞ্চলে এদেরকে খুঁজে পাবেন না। 
প্রখর শ্রবণশক্তির কারণে এরা অন্ধকারেও শিকার ধরতে পারে। হুতুম পেঁচা, ভুতুম পেঁচা, লক্ষ্মীপ্যাঁচা এরকম আরো কিছু নামে আমরা বাঙ্গালীরা প্যাচাকে ডেকে থাকি। প্যাঁচা নিরীহ প্রাণী হলেও অনেকে এদেরকে মৃত্যুদূত বলে মনে করে। পেঁচা ডাকলে কারো মৃত্যু হবে এই বিশ্বাস শুধু আমাদের না, পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চলেই আছে। চেহারা ভয়ংকর বলেই হয়তবা, ভাল চেহারার খারাপ মানুষ আর খারাপ চেহারার ভাল মানুষ বোধকরি সবাই কমবেশী দেখেছেন। প্যাঁচাকে দোষ দেয়া কতটা যৌক্তিক একবার ভেবে দেখবেন। 

মানুষের বিশ্বাস নিয়ে কোন নেগেটিভ মন্তব্য করতে চাই না, তবে সেটা কখনো কখনো সত্যি নাও হতে পারে। কুসংস্কার আর বাস্তবতাকে আলাদা করতে শিখুন, সত্যিটা খুঁজে পাবেন।


0 comments:

Post a Comment